ফাইল আদান ফ্রদান খরুন যাদু দিয়ে :D – একটি বাল্কেশীয় চাগেষোনামূলক বাল্পুষ্ট

বিজ্ঞানের বুজরুকি নিত্য দেখতে দেখতে নিশ্চয় আপনার চোখে চালসে পড়ে গেসে। তাই আমি আজকে নিয়ে এলাম যাদুমন্ত্র পদ্ধতিতে পাইল পটানোর থুক্কু পাঠানোর ব্যবস্থা নিয়ে। আমি আবার আধা খেছড়া লিখতে পচন্দ করি না। যা লিখি সবটা বর্ণনা করাই আমার অভ্যাস। য্যামন ধরেণ যদি বিলাই নিয়া লিখতে কয় তাইলে কমু পুশির কয়টা ঠ্যাং, পুশি দিয়া কি করে (ইয়ে আপনারা যা ভাবতেছেন তা খিন্তু না 😀 ) , পুশি কি খায় (আচ্চা যাউক আমরা অন্য দিকে যাইতাসি ) । আমার ইচ্চা করসিল আমার পুশি নিয়া কিসু লিখমু। ওয়েল, ওটা নিয়ে আরেকদিন লিখপ।

আজকের বাল্পোস্টের প্রথম বিসয়,

পাইল কী জিনিষ?

পাইল মানে ওষুদের পাইল নয়, নয় কোন স্তূপ (Pile) । পাইল হইল গিয়া ধরেন লিওনির ভিড্যু ইয়ে মানে রাগিনি সেকচএমএসের ভিড্যু কিংবা আঁতেলদের পিডিএফ অথবা আমার গার্লফ্রেন্ড থুক্কু বয়ফ্রেন্ডের কিংবা আমার পুশির ছবি :D।

পাটানো কী জিনিষ?

আষলে ব্যাপারটা হইসে কী, আপনার মুপাইলের জিনিষ আপনিই দেখবাইন। কিন্তু আপনার ভিডু যদি অন্য খেউ দেখতে চায় তাইলে কী কর্পেন? অবশ্যই পাটাতে হপে। আমরা আজকে শিখপো যাদুমন্ত্রবলে কীভাবে পাটাতে হয় 😀 । এবার আপনি খুশি তো??? 😀

কেন পাটাব?

আপনি হয়ত ভাবসেন, আমার জিনিস তো আমারই। ওটা আবার পাটানো যায় নাকি? 😉 । আর ব্যক্তিগত ফুটো, ভিডু কেনই বা পাটাব? কিন্তু এই পাটানোর পিসনে ব্যাপক ব্যাখ্যা আসে। সেটা হল, আপনার মুপাইলের কোন বিশাল ভিডু দেখতে দেখতে কক ব্যাথা হইয়া যাইতে পারে। যেহেতু মাথাব্যাথা হইলে আপনি হাজুখিটামল খাইলেই ষাইরা যাপে। খিন্তু কক ব্যাথ্যা?? ক্যামনে কী! ঔটা মালিষ করবেন ক্যামনে??? তাই তো বলি গরুজনদের কথা মানেন। জিনিষফত্র আদান ফ্রদান করেন। আর এইটা পাঠাইলে এমন না যে আপনার এইডস হয়া যাবে। আপনি নিশ্চিন্তেই ফাটাতে পারবেন 🙂

আজকের পোষ্টঠি যেখারণে লেখা! কীভাবে পাটাবেন???

পুত্তুম কাজ হল বাজার থেকে মুপাইল পোন কিনে আনা। [খপরদার, মগবাজারের চিপায় জাইয়েন না আবার, হিতে বিপরীত হইতে পারে :P]

দ্বিতীয় কাজ হল, মুপাইলটা সহি সালামত বাসায় নিয়া আসা, আবার দুকানে রাইখা আইসেন না। আমাদের মঘাচীপুদ্দৌলা এই কামডা করসিল , তো ফ্রবাসী ভাই অনেক মালপানি ঢাইলা মিটমাট করসে, সেই গল্প আরেকদিন হপে। আর মনে রাখপেন, পাইল কিন্তু আপনাকেই পাটাতে হপে, দুকানদার কিন্তু কিসুই করব না।

 

তৃতীয় কাজ হল গুলিস্তানের চিপার যান, দেখপেন মামারাই আপনারে ডাকতেসে। মামা এইদিকে আসেন সিন সিনারি আসে, ভাল বাংলা বিদেশী চাইনিজ জাপানিজ হাজুনিছ ফ্রবাসী মাল এইসব ভুগিচুগি কথাবার্তা। তো আপনি যাইপেন, মাল আনলে অবশ্যই টেষ্ট করে আনপেন নইলে দেশীর জায়গায় জাপানিজ বড়ে দিতে ফারে। এবার আপনি আপনার মালপানি অনুযায়ী সিন সিনারি ভর্তি করে আনুন।

[সাবধানতা: গুলিস্তানে হাজুর মত যুয়ান পোলাপাইন পকেটমার হিসেবে আত্মগুফন খরতে ফারে, এদের তেকে নিজেরটা বাচিয়ে চলুন; ইয়ে মানে মুপাইল আরকি 😀 ]

চতুর্থ ও গুরুত্বফুর্ন খাজ, আপনার মতই একজন বোকা** বন্ধু জুগার খরুন। আপনি যেরকম বোকা** আপনার *নের মত ইয়ে মানে মনের মত বোকা** বন্ধুও পাইপেন অবশ্যই আর তার সাথে যেন জিনিস থাকে, মানে মুপাইল আরকি 😀

 

৫ম কাজ, এভারে যাদুমন্ত্রের পালা। ত্রইটা না পারলে আপনি পুরাই বোকা** কারণ এত কষ্ট কইরা এতগুলা বকবক করসি এইটার জন্যই। মন দিয়া পড়েন,

আধুনিক মুপাইলে একধরণের জিনিস থাকে সেইটার নাম নিলদাত। জি হা, এইটা কুফরি করা দাত না, সুলেমানী দাত। নূরানী পদ্ধতি ইউজ করিয়া বাতাসের তরঙ্গবেগের সাথে বালসিটি ম্যাচ করিয়া পাইল পাটিয়ে তাকে। আবার আপনার দাতে নীল রং মাইক্কা খুইল্যা ফেলাইয়েন না। ঔ কাম করলে ফ্রবাসী টাকা দিব না কারণ ঔটা কুফরি করার পর্যায় যাইবোগা, বুস্সুইন??

৬ষ্ট কাজ, নীলদাত ছালু করুন, এত কথা কইলাম এইডা অন করে ক্যামনে ঔটাও কমু নাকি??? ধ্বজভঙ্গ মেহেদী আমারে এত কথা লিখার জন্য টাকা দেয় নাই -_- , আপনে মুপাইলের পুটু খুলে বা যেমনে পারেন নীলদাত চালু করেন। আমার মাথাব্যাথা না ঔটা

 

৭ম কাজ, ইয়েএএএ আপনে শেষ ধাপে আসছুইন। এবার আপনার বন্ধুরে আপন সুরে কাচে টানেন। যেহেতু নূরানী পদ্ধতি তাই বন্দুরে অখুশি রাইখা পাইল পাটানো যাবে না, বাতাসে উহা লটকাইয়া তাকপে। বন্দুকে কাচে টেনে (অন্য কিসু ধইরা টানাটানি শুরু কইরেন না -_-), ওরটা অন করুন ইয়ে নীলদাত।

 

৮ম কাজ, তো আর কি! পাটান আপনার গুরুত্বফূর্ণ পাইল বা পাইলস। তাও কইতে হইব নাকি?? 😀

আমি শুভ্র বাল্কেশ, আবার হাজির হব কোন নতুন পেড বাল্পুস্ট নিয়ে। হামার সাথেই থাকুন। আমার সাথে আপনাদের Duo রইল, প্রচেচর ডুয়ো না, দুয়‌ো। 😀

ফুটনোট: বোকা** একটি ঢেকটিউনসীয় শব্দ। এর সত্বাধীকার শুদু ঢেকটিউনস কর্তৃপক্কেরই আচে।

 

Advertisements
This entry was posted in Uncategorized by শুভ্র বাল্কেশ. Bookmark the permalink.

About শুভ্র বাল্কেশ

নিজের সম্পর্কে তেমন কিছু বলার নাই, আমি আকাল। পুরো নাম "শুভ্র ভুগিচুগি বাল্কেশ"। থাকি সোর্সগঞ্জ। বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র, ভবিষ্যতে চাগেষোনামুলক কাজ করার ইচ্ছা আছে, বর্তমানে একটি সাঁকপাতা ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিনুদুন টিউনস,আমার অত্যান্ত প্রিয় একটা সাইট। বিনুদুন টিউনসে আছি প্রায় কিছুদিন। প্রথমে ছিলাম ভিসিটর,পরে একদিন শখের বশে একটা টিউন করে ফেললাম। দেখলাম ভালই তো লাগে। তারপর থেকে মুলত নিয়মিত টিউন করছি। আর আপনাদের ভালোবাসায় আমাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। আপনাদের সহযোগীতা পেলে টিউনিং অবশ্যই কন্টিনিউ করব। পাইরেসি সর্দার দ্রোবাসী ভাই ঢেকটিউনস এ আমার অত্যান্ত প্রিয় টিউনার এবং টিউন করার ক্ষেত্রে যাকে আমি ফলো করি। হয়তো অতটা ভাল হয়না তবুও চেস্টা করি।

2 thoughts on “ফাইল আদান ফ্রদান খরুন যাদু দিয়ে :D – একটি বাল্কেশীয় চাগেষোনামূলক বাল্পুষ্ট

  1. শুভ্র বাল্কেশ,

    এখন তো Wifi এর যুগ, সবাই Zapya, Any Share, ShareIT ব্যবহার করে, তাই এই বাল্পুস্ট তেমন উপকারী না

    তারপরও আপনাকে ঢেকন্যবাদ

একটা কমেন্ট করে যান

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s