ঢিউন্টারভিউ: হানাজ জুখায়েভ, ব্লগার

ঢিউন্টারভিউ গেস্ট: হানাজ জুখায়েভ, ব্লগার, ঢেকটিউনস-ঢিউটোরিয়ালবিডি-প্রিয়ঢেক
ঢিউন্টারভিউ হোস্ট: হারিফ নিঝামী
সময়: ২ নভেম্বর, ২০১২, শুক্রবার, রাত ৩টা
স্থান: মুন্সীগঞ্জ, ঢাকা।
ব্যাপ্তি: প্রায় ১২০ মিনিট ।

হানাজ জুখায়েভ, বাংলাদেশের ঢেকি তরুণদের অন্যতম প্রতীক এবং দুনিয়ার সবচেয়ে বড় সোশিয়াল চিপাগলির কারখানা ঢেকটিউনসের নিয়মিত ভিজিটর ও পেইড ভ্লগার। যার টিউটোরিয়াল কপি করে Lynda.com আজ প্রথম সারির টিউটোরিয়াল নির্মাতা, যার ঢিউন না পেলে ঢেকটিউনস অ্যালেক্সা র‍্যাংকিংয়ে ১৪তম হতনা, যার বিশাল সফটওয়্যারের খনি না থাকলে বাংলাদেশের তরুণেরা সফটওয়্যার অপুষ্টিতে ভুগতো সেই কিংবদন্তী মানুষটি হলেন হানাজ জুখায়েভ। ঢেকটিউনসের একটি পোস্টের কমেন্টে উনার ঢিউন্টারভিউ গেস্ট হবার শখ জাগে। তাই আমাদের ঢিউন্টারভিউ গেস্ট হারিফ নিঝামী চলে এসেছেন হানাজ জুখায়েভ-এর বাসায়। আজ আমরা এই আফা’র (আল ফাতাহ্) গল্প শুনবো।

ঢেকটিউনস: শুভ মধ্যরাত। প্রথমেই আপনার নিজের সম্পর্কে আমাদের পাঠকদের কিছু বলুন ।
হানাজ জুখায়েভ: আমি হানাজ জুখায়েভ, নর্দান ইউনিভার্সিটিতে বিবিএ পড়ছি। থাকি ঢাকায়। বর্তমানে ভ্লগার ও বহুত জায়গায় পেইড রাইটার হিসেবে কাজ করছি।

হানাজ জুখায়েভবিখ্যাত ডেড সী উপকূলে হানাজ জুখায়েভ

ঢেকটিউনস: আপনার পড়াশোনার শুরু কোথায়?
হানাজ জুখায়েভ: পড়াশোনা নিয়ে তেমন মাথাব্যাথা ছিলনা কখনো। কিন্তু স্কুলে ভর্তি হবার পর থেকেই ঝামেলার মাঝে পড়লাম। হাবিজাবি করে গুককে (গুলশান কমারস কলেজ) ভর্তি হলাম। এখন বিবিএ পড়ছি। Trust me, I’m not an engineer. আচ্ছা যারা ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ে তারা ইঞ্জিনিয়ার, তাহলে বিবিএ পড়লে তাদের কি বলে? বিয়ার?!?!

ক্লাসমেটদের সাথে হানাজ জুখায়েভক্লাসমেটদের সাথে হানাজ জুখায়েভ

ঢেকটিউনস: বিবিএ’র ছাত্র হয়েও কেন আইটি নিয়ে আগ্রহ?
হানাজ জুখায়েভ: জানিনা, আমার মনে হয় ঢেক জিনিসটা দিয়ে সব কিছুই সম্ভব। এইযে আপনি আমার ঢিউন্টারভিউ নিচ্ছেন, আমি যদি বাসার সামনে মাছ বিক্রেতার লাভ ক্ষতি হিসাব করতাম তাহলে কেও আমাকে চিনত? এইযে আমার টিউটোরিয়াল দেখে ইউটিউবের পেজ র‍্যাংক বাড়ছে, আমি না থাকলে কি হত? তাছাড়া ঢেকটিউনসের প্রচার ও প্রসারে আমার গুরুত্বপূর্ণ অবদান আছে।

ঢেকটিউনস মিটআপে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করছেন হানাজ সাহেবঢেকটিউনস মিটআপে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করছেন হানাজ সাহেব

ঢেকটিউনস: আপনার এসবের পিছনে অনুপ্রেরণা কি ছিল?
হানাজ জুখায়েভ: বিষয়টা শুরু হয় ৯ ডিসেম্বর ২০০৯ এর দিকে। তখন ঢেকটিউনস মোটামুটি পরিচিত হতে শুরু করেছে। একদিন আমি সাহস করে একটা ঢিউন করে ফেললাম “ফেসবুক Chat এ এখন আরও বেশি মজা !!!!!!!!!!” নামে। ঢেকটিউনসের অলিখিত নিয়ম অনুসারে প্রথমেই লিখে দিলাম “প্রথমে সবাই কে জানাই আসসালামু-আলাইকুম। সবাই নিশ্চই ভাল আছেন। এটা আমার প্রথম ঢিউন, তাই কোন ভুল হলে নিজগুনে ক্ষমা করবেন। এবার আসি কাজের কথায়।” ব্যাস! খুব সাপোর্ট পেলাম তা নয়। তবে আমার অনেক অনেক বড় আত্মবিশ্বাস জন্মালো। তারপর আর পিছে তাকাতে হয়নি। সবসময়ই সামনে মনিটরের দিকে তাকিয়ে বিদেশী সাইটের টিউটো সুন্দর বাংলায় লিখে প্রচার করতে শুরু করি। তারপর কি হল? দেখতেই তো পাচ্ছেন।

ঢেকটিউনস: ভ্লগার হিসেবে নিজেকে কিভাবে মূল্যায়ণ করবেন?
হানাজ জুখায়েভ: আমি নিজেকে ভ্লগারের চেয়ে সাধারণ একজন মানুষ ভাবতেই পছন্দ করি। আমি তেমন কিছু জানি না তবে জানার অনেক তৃষ্ণা আছে বলতে পারি। নতুন কিছু করার দারুন আকাঙ্ক্ষা আছে আমার মাঝে। তবে ভ্লগিং পেশা হোক নেশা হোক খারাপ নয়। ভালমত মেইনটেইন করলে লসের কিছু নেই। আমাকে দেখে ধারণা নিন।

ফ্রিয় ঢেকের ঝাখাড়িয়া স্বপন ও ঢেককিচিরমিচির এর প্রতিষ্ঠাতার সাথে হানাজ জুখায়েভফ্রিয় ঢেকের ঝাখাড়িয়া স্বপন ও ঢেককিচিরমিচির এর প্রতিষ্ঠাতার সাথে হানাজ জুখায়েভ

ঢেকটিউনস: আপনার প্রিয় কিছু জিনিসের নাম বলুন।
হানাজ জুখায়েভ: সবচেয়ে প্রিয় আমার খম্পিউটার। আমার বন্দু শুভ্র বাল্কেশের একটা ঢিউন আছে কিভাবে খম্পিউটার কিনতে হয় এবং নেট স্পীড বাড়াতে হয়। আর আমি সবসময় ফেসবুকে পড়ে থাকি। আগে চ্যাট করতে সমস্যা হত, ইমোশন মনে রাখতে হত, এখন কত সফট। ভাল কথা মনে করেছেন! কিভাবে ফেসবুকে চ্যাট করে তা নিয়ে একটা টিউটোরিয়াল লেখা জরুরী।

ঢেকটিউনস: ইয়ে বলছিলাম প্রিয় …
হানাজ জুখায়েভ: ও হ্যা, প্রিয় জিনিস। আমার নতুন বাইকটা দেখেছেন না ঘরে ঢোকার সময়? ওটা অনেক প্রিয়। আর বন্ধুদের মাঝে আমার প্রতিবেশী ও ক্লাসমেট সাদ্দাম খুবই প্রিয়।

সাদ্দাম হোসেইনের সাথে হানাজ জুখায়েভসাদ্দাম হোসেইনের সাথে হানাজ জুখায়েভ

ঢেকটিউনস: হ্যালোইনে কি করলেন?
হানাজ জুখায়েভ: বিশেষ কিছুই নয়। শুধু ফেসবুক কভারটা বদলালাম। ফটোশপ সিএস২০১৩ দিয়ে করেছি। দেখুন তো কেমন হয়েছে।

হানাজ জুখায়েভের ফেসবুক কভার ফটোহানাজ জুখায়েভের ফেসবুক কভার ফটো

ঢেকটিউনস: আপনার বাইকটি নিয়ে কিছু বলুন।
হানাজ জুখায়েভ: আপনি নিশ্চয় জানেন যে বাইক কেনার আগে আমি ঢেকি, সামু, মূত্রমনা সবখানে পোস্ট দিয়েছি সাজেশনের ব্যাপারে। প্রথমে ভাবলাম ডুকাটি হানাজ-জিটি ৭৬৫০ নিবো। ওইটা ডিডিআর-৫, আরো কি কি সব ফিচার আছে। কিন্তু কাঠের বডি আমার পছন্দ না। আর জিনিসটাও আমার মত লিটিল লিটিল।

হানাজ জুখায়েভের বাইকহানাজ জুখায়েভের বাইক

ঢেকটিউনস: ইয়ে বাইকের কথাই বলছিলাম, গ্রাফিক্স কার্ড নয়।
হানাজ জুখায়েভ: হ্যা ওটাই তো বলছি। আমি প্রতিদিন পিসিতেই তো রোড র‍্যাশ খেলি। ওটা কোন গ্রাফিক্স কার্ড দিয়ে খেলি তা বলছিলাম। ও আপনি সত্যিকার বাইকটার কথা বলছেন? আমার বাইক হল ভংচংওয়াজেন ডব্লিউ৩৬৫ প্রফেশনাল প্লাস। বুঝতেই পারছেন, আমি যেমন সফটওয়্যার পাগল আর বিশেষজ্ঞ, বাইকটা স্পেশালি বানানো। সাথে থ্রি হুইলার হাইপার-ভি ইঞ্জিন আছে।

হানাজ জুখায়েভের আসল বাইকহানাজ জুখায়েভের আসল বাইক

ঢেকটিউনস: বাইকে চড়ার অনুভূতি কেমন?
হানাজ জুখায়েভ: বাইক চালানোর সময় প্রায়ই মনে হয় রাস্তার মাঝে যে সব পথচারী হাটা হাটি করে এদের গায়ে ইচ্ছে করে লাগিয়ে দেই। অনেকটা পায়ের উপর চালানোর ইচ্ছা হয় সব সময়ই। সাধারণ এই ব্যাপার থেকে বুঝতে পারি ট্রাক চালকের কেমন লাগে যখন সে ড্রাইভ করে!

ঢেকটিউনস: বাইক নিয়ে বিশেষ কোন অভিজ্ঞতা?
হানাজ জুখায়েভ: একদিন জীবনের প্রথম পুলিশকে ঘুষ দিয়েছিলাম 😦 বাইক নিয়া মেইন রোডে গেছিলাম, পিছে লাবণী মিলি শর্ট কামিজ পরে। তখন হঠাৎ করে পেট মোটা পুলিশের ডাক। রেজিস্ট্রেশন করা হয় নাই তাই কিছু হাদিয়া ভুড়ির উপরে ফালাতে হলো। এ এক অদ্ভুত অভিজ্ঞতা। তবে লাবণীর সাথে বাইকে চড়ার মজাই আলাদা।

লাবণী মিলির সাথে হানাজ জুখায়েভলাবণী মিলির সাথে হানাজ জুখায়েভ

ঢেকটিউনস: আপনার ব্যাক্তিগত জীবন সম্পর্কে কিছু শুনবো।
হানাজ জুখায়েভ: পুরনো স্মৃতি মনে করতে চাইনা। তবে আমি যেহেতু সেলিব্রেটি, কাজেই পাঠকদের হতাশ করবোনা। এখন আমি সিংগেল। যদিও লিন্ডা ডট কমের ফাউন্ডার Lynda Weinman এর সাথে দুবছর সংসার করেছি। কিন্তু আমি ওর ভিডিও টিউটোরিয়াল চুরি করে ঢেকটিউনস আর ঢিউঢোরিয়ালবিডিতে ছাপাতাম। ওই ঘটনার পরেই লিন্ডা আমাকে ডিভোর্স দেয়।

লিন্ডার সাথে হানাজ জুখায়েভলিন্ডার সাথে হানাজ জুখায়েভ

ঢেকটিউনস: ঢেকটিউনস ভিজিট করেন? কেমন লাগে?
হানাজ জুখায়েভ: Awesome একটা সাইট। এখন ওরা ক্লাউড করার পর খুব দ্রুত হয়েছে। আর আমি তো প্রতিদিন ভিজিট করি। চমৎকার সব ঢিউন হয়।

ঢেকটিউনস: ঢেকটিউনসের ঢিউনের মান ও মডারেশন নিয়ে কোন প্রশ্ন জাগেনা?
হানাজ জুখায়েভ: উহু। আসলে জনপ্রিয়তা জিনিসটাকে ধরে রাখতে হলে আপনাকে দরকারমত যত নিচে নামা যায় নামতেই হবে। যেমন ঢেকটিউনস হল পাইরেসির আড্ডাখানা। আপনি বলেন, এইসব মুভি, উইন্ডোজ ৯, সফটওয়্যারের ক্র্যাক ঢেকটিউনসে না ছাপালে র‍্যাংক তো মূত্রমনারও নিচে চলে যাবে। আর মডারেশন? শুধু একজনকে (সোর্সফিশ) দিয়ে সবাইকে বিচার করবেন কেন? হতে পারে সে লোভী, কান্ডজ্ঞানবিহীন, অভদ্র। তাই বলে এডমিন মেহেদী এদের কি কোন দোষ নেই? তারা কেন কনট্রোল করেনা?

ঢেকটিউনস টিমের সাথে হানাজ জুখায়েভঢেকটিউনস টিমের সাথে হানাজ জুখায়েভ

ঢেকটিউনস: পাইরেসি নিয়ে আপনার কি মতামত?
হানাজ জুখায়েভ: শুনুন, সফটওয়্যার শিল্পের নীতিকথা আমাদের মত থার্ড ওয়ার্লড কান্ট্রিতে মানায়না। হলইবা দেশের ক্ষতি, বাংলাদেশ না হয় পাইরেসির দিক দিয়ে টপ চার্টে থাকলো, তাও তো কিছু একটায় প্রথম দিকে থাকতে পারছে। এটাকে সাফল্য হিসেবে ধরতে হবে। আর আমি হলাম পাইরেট অব বাংলাদেশ, পাইরেট বে-তে আমি পাইরেসি করে পাইরেটেড ফটুকশপ ডাউনলোড করি। এসব পরোয়া করিনা আমি।

পাইরেসির লিটল সর্দার হানাজ জুখায়েভপাইরেসির লিটল সর্দার হানাজ জুখায়েভ

ঢেকটিউনস: ত্যালা বান্দরের সাথে আপনার পরিচয় কেমন?
হানাজ জুখায়েভ: সে আর বলতে! উনি না থাকলে আমার কি হত কে জানে? এইযে এত জনপ্রিয় একটা প্লাটফর্মে আমার লেখা ছাপা হচ্ছে, আমি কতশত টিউটোরিয়ালের বস্তা সাপ্লাই দিচ্ছি, এসব তো ত্যালা বান্দরের সহায়তা ছাড়া সম্ভব হতনা। দাঁড়ান, উনার সাথে তোলা একটা ছবি আছে আমার।

ত্যালা বান্দরের সাথে হানাজ জুখায়েভত্যালা বান্দরের সাথে হানাজ জুখায়েভ

ঢেকটিউনস: পাঠকদের প্রতি কিছু বলতে চান?
হানাজ জুখায়েভ: সবাইকে বলতে চাই আপনারা ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন। আমার ঢিউন্টারভিউতে কোন ভূল ত্রুটি হলে নিজ গুণে ক্ষমা করে দিবেন। আর ভাল লাগলে মন্তব্য করবেন। আর সবাইকে আমার কাঠালপাতা প্যানফ্যানপেজে থেকে লাইক তুলে নিতে অনুরোধ করছি। সাথে ঢেকটিউনসের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজেও লাইক দিতে ভুলবেন না। আপনাদের জন্য ফটুকশপ দিয়ে একটা ব্যাগ তৈরী করলাম। দেখুন তো কেমন হয়েছে।

হানাজ জুখায়েভের তৈরী ব্যাগহানাজ জুখায়েভের তৈরী ব্যাগ

ঢেকটিউনস: আপনাকে ধন্যবাদ।
হানাজ জুখায়েভ: আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ।

Advertisements

35 thoughts on “ঢিউন্টারভিউ: হানাজ জুখায়েভ, ব্লগার

    • তিনি ত্তনলাইনে টিউটোরিয়াল লেখা, লাবণীমিলির সাথে ইঢিপিঢিস করা, কাঢালপাতা ফ্যানপেজ চালানো সহ যাবতীয় গড়ুত্তপূর্ণ কাজকাম করে থাকেন।

  1. হানাজ জুখায়েভ ভাইয়ের সম্পর্কে নতুন অনেক কিছু জানতে পারলাম

    তবে আমার মনে প্রশ্ন জাগে, হাজু সবখানে বারবার “অসাধারণ পোস্ট 😀 ” কমেন্ট করে কেন! উনারকি মুদ্রাদোষ আছে নাকি?!

    • কারো কোন সমস্যা থাক্তেই পারে। সেইটা নিয়ে খমেন্ট কর্লে আপনাকে ব্যান করা হতে পারে।

      মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ। আমার বন্দু হারিফ নিঝামী একটু চিপায় চাইপ্পা গেছেন। তাই আমি খমেন্ট করতে আসচি। ধন্যবাদ।

      —-

      ঢেকীরেটর সোর্ডফিশ

  2. অষাধারণ ঢিউন্টারভিউ!!! আপনাদের ঢিউন্টারভিউ আমার নিত্যদিনের প্রেরণা!!!

    আমার ঢিউন্টারভিউ কবে নেওয়া হবে??? 😦

    • আপনার অস্বাধারন কমান্ডের জন্য ধন্নবাদ।

      ইয়ে, মালকড়ি কিছু ঢাললেই আপনার ঢিউন্টারভিউ নেত্তয়া হবে যদি আপনার সাইট অকাজের বা ফালতু হয় তাত্ত।

      ঢেকীরেটর সোর্ডফিশ

  3. আমিত্ত অপেক্ষায় আছি আমার ঢিউন্টারভিউ কবে নেয়া হপে…..

    আমিতো পিচ্চি পোলা, তাই হয়ত সবার শেষে আমার পালা….

    বেসুবিধা নাই, আমি সবসময়ই প্রস্তুত, যখন নিতে চাবে তখনই দিতে দিতে পারব

    • জনাব পিচ্চি পোলা,
      আপনার মতামত ঢেকটিউনস গুরুত্বের সাথে দেখছে। খুব শীঘ্রই আপনার ঢিউন্টারভিউ নেওয়ার ডাক পড়তে পারে। ঢেকটিউনসের চিপাগলিরতে থাকায় আপনাকে ধন্যবাদ।

      ঢেকীরেটর সোর্ডফিশ

  4. অচাম অচাম ! হাজু ভায়ের ফুডুকসুপের ঢিউঢরিহাল পাওয়া যাপে খি !!! ফুড়ুকসুপ চিকতে চাই হাজু ভাইয়ের কাচে ! 😀

    • জনাব রোডলস্ট,

      ফটুকশপ ঢিউঢোরিয়াল শিখতে চাইলে আপনি আমাদের অনলাইন ইস্কুলে ভর্তি হয়ে মাত্র ৫০০০ টাকায় ফটুকশপ শিখে ত্তডেস্কে লাখ লাখ টাকা কামাই করে বাড়ির সামনে হতে পিৎজা কিনে খেতে পারবেন। এখুনি যোগ দিন অনলাইন ইস্কুলে।

      কমান্ড করার জন্য ধন্নবাদ।


      ঢেকীরেটর সোর্ডফিশ

    • ধন্যবাদ জনাব উদরাজী।

      আপনি কি ঢিউন্টারভিউ গেস্ট হতে চান? কিংবা আপনার রান্না নিয়ে রিভিউ দিতে চান? যোগাযোগ করুন, আমাদের ঢিউন্টারভিউ হোস্ট আপনার সাক্ষাৎকার নিতে প্রস্তুত থাকবে।

      মন্তব্য করায় ধন্যবাদ সাহাদাতজী।

      ঢেকীরেটর সোর্ডফিশ

  5. আমাদের লিতিল জিনিসের ঢিউন্টারভিউ ফড়ে ভালু লাগলু, কিন্তু আমার ঢিউন্টারভিউ কই? হারিফ নিঝামী, তুমি আঘামি ৪৮ ঘন্টার মধ্যে আমার ঢিউন্টারভিউ ফাবলিশ না করলে ফ্রবাস থেকে তোমার জন্য ফ্রবাসি ললিপপ পাঠানো বন্ধ করে দিব।

    • ১৯২ ঘন্টা পার হয়ে গেল। হারিফ নিঝামী তাও ঢিউন্টারভিউ নেয়নি! ওকে ব্যান মেরে দিচ্ছি। এখন থেকে আমিই ঢিউন্টারভিউ নেব।

    • লাবণী আপু, আপনাকে নিয়মিত দেখিনা কেন? অনেকদিন পর এলেন।

      ইয়ে হাজু ছোট তো, স্বপ্নে দোষ ত্রুটি করতেই পারে। মাফ চাচ্ছি ওর পক্ষ হতে।

      ইয়ে, আমার বাসায় আসুন। ত্তডেস্কের টাকা ক্যাশআউট করেছি, পিৎজা খাওয়াবো।

    • জনাব জারজ,

      আপনি জনসমক্ষে এমন কথা না বললেই পারতেন। ওসব কাজ করার বহু জায়গা রয়েছে। আর বেশী উল্টা পাল্টা করলে একদম ব্যান করে দেব বললাম।

      — মডারেটর সোর্ডফিশ

  6. পোড়ায় লাগায়লেন ভাই, জাউজ্ঞা ভাবতাছি আমহেগর লগে যোগ দিম ।

    আবেগ কন্ট্রোল করতে পারি না…

    -ধন্যবাদ ভায়েরা চালায়া যান আপনাদের ঢেঁকি মারা

একটা কমেন্ট করে যান

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s