ঢিউন্টারভিউ: মাহবুব আলম, মডারেটর, ঢেকটিউনস


ঢিউন্টারভিউ গেস্ট: মাহবুব আলম, মডারেটর, ঢেকটিউনস

ঢিউন্টারভিউ হোস্ট: আরিফ নিজামী
সময়: শুক্রবার, ২৭ জুলাই, রাত ১০টা
স্থান: চিপা গলি, মানিকগঞ্জ।

মাহবুব আলম, সোর্ডফিশ নামে পরিচিত, দেশের বৃহত্তম ও সর্বাধিক জনপ্রিয় ঢেক সাইট ঢেকটিউনসের মডারেটর হিসেবেই পরিচিত। তার স্বৈরাচারী মনোভাব, কমেন্ট মডারেশন ও টিউন পেন্ডিংয়ের ক্ষমতায় ঢেকটিউনস আজ প্রথম সারির কাতারে এসে পৌছেছে। চলুন শুনি তার সফলতার গল্প।

ঢেকটিউনস: ঢেকটিউনসের সাথে আপনার পরিচয় কিভাবে?
সোর্ডফিশ: তখন ২০০৮ সাল। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কড়াকড়িতে যৌবনজ্বালা সহ অনেক অ্যাডাল্ট সাইট বন্ধ হয়ে যায়। আমার নিয়মিত কাজ ছিল ওগুলোর পেজভিউ বাড়ানো ও নিয়মিত ছবি আপলোড দেওয়া। সাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আমি হতাশ হয়ে পড়ি। তখন ঢেকটিউনের এডমিন মেহেদী ভাই আমাকে পেইড ব্লগার হিসেবে চাকরি দেন। সেই থেকেই ঢেকটিউনসের সাথে আমার পরিচয়।

ঢেকটিউনস: আপনার ব্যাকগ্রাউন্ড বাংলায় অনার্স করছেন। তা ঢেকনোলজির সাথে কিভাবে পরিচয়?

সোর্ডফিশ: ওইযে বললাম নিয়মিত অ্যাডাল্ট সাইট ভিজিট করতাম। ওসব করতে করতেই আমি কিবোর্ড চালানো, ভিডিও ডাউনলোড, কনভার্ট করা শিখে নিলাম। আস্তে আস্তে কম্পিউটার ঠিক করা, সেটআপ দেওয়া, মেমুরি কার্ডে উইন্ডোজ ৯ চালানোও শিখে ফেলি। পাড়ায় সবাই আমাকে “ঢেকি সোর্ডফিশ” বলতো।

ঢেকটিউনস: আপনার নাম সোর্ডফিশ কেন?
সোর্ডফিশ: আর বলবেন না। আপনি সোর্ডফিশ মুভিটা দেখেছেন না? ওটার নায়িকাটা যা অসাম না! আমি তো মুভি প্লে করেই টয়লেটে দৌড় দিয়েছিলাম ঠান্ডা হতে। তা মুভিটা দেখার পর মনে হল “চিকস” বা মাইয়া পটাতে হলে সোর্সফিশ নামটা রাখতে হবে। এতে হিরু হিরু ভাব আসে। তাই ঢেকটিউনসে “সোর্ডফিশ” নামে একাউন্ট খুলে ফেল্লাম।

ঢেকটিউনস: আপনার ব্যাক্তিগত জীবন সম্পর্কে জানতে চাইবো।
সোর্ডফিশ: ধুর মিয়া। এইটা তো কনটাক্টে ছিলনা। যাহোক, জানতে চাচ্ছেন যখন বলি। আমার একটা টিয়া আছে, খুবই সুইট। এবছরই এসএসসি দিলো। কচি মেয়ে, বুঝেন তো, সুবিধা হয়। আর ওদিক সেদিকে টুকটাক বান্ধবী তো আছেই।

ঢেকটিউনস: ঢেকটিউনসে সময় কিভাবে যায়?
সোর্ডফিশ: আমি আসলে ত্তডেস্কে কাজ করি। সুতরাং বেশীরভাগ সময় ত্তখানেই যায়। তবুও ঢেকটিউনসের মডারেটর প্যানেলে নিয়মিত চেক করি স্প্যাম আসছে কিনা। তবে বড় সুবিধা হল কোন মাইয়া ইউজার পেলে তার ইমেইলটা কালেক্ট করি। তারপর তাকে ফেসবুকে রিকুয়েস্ট পাঠাই। আল্লাহর রহমতে ঢেকটিউনসের দোয়ায় আমার দিনকাল ভালই যাচ্ছে।

ঢেকটিউনস: আপনার লেখা বেশ কিছু বই ম্যাগাজিনওয়ালাদের কাছে পাওয়া যায়। সে সম্পর্কে কিছু বলুন।
সোর্ডফিশ: হাহা আপনি তো আমার সব খোজই রাখেন দেখি। হ্যা, আমি যেহেতু বাংলায় অনার্স করেছি, তাই চটি লেখায় বিশেষ পারদর্শিতা আছে। আর ওইযে বললাম যৌবনজ্বালায় নিয়মিত পাঠক ছিলাম। সেই সুবাদে সাহিত্যিক ভাবটা চলে এসেছে আরকি!

ঢেকটিউনস: আপনি তো বাংলাদেশের প্রথম ত্তডেস্ক ফ্রিল্যাঞ্চার। অনুভূতিটা কেমন?
সোর্ডফিশ: আসলে ত্তডেস্কে কাজ করার কোন যোগ্যতা ছিলনা আমার। পাড়ার এক বড় ভাই (উনি নিয়মিত আমাকে দিয়ে ** চুলকে নিতেন) আমাকে একদিন হঠাৎ বললেন, “মাহবুব, অকর্মার মত সারাদিন নেটে পর্ণ দেখে আর ভিডু ডাউনলুড না করে ত্তডেস্কে কাজ করলেই তো পার। পকেটে কিছু পয়সাও এসে যায়, মাসের নেট খরচ আর ফেন বিলটাও দিতে পারবে।” তখন আমি ত্তডেস্কে সাইন আপ করি। এখন ঘন্টায় ১ সেন্ট হারে ডাটা এন্ট্রি, ক্যাপচা পূরণ, আর্টিকেল রাইটিং ও কিছু XXX সাইটে জুমলা ইন্সটলেশনের কাজ করছি। সেদিক দিয়ে অনুভূতিটা ভাষায় প্রকাশ করা সম্ভব না। ওয়েট, একটু ওয়াশরুম থেকে আসছি, সাইটের নাম শুনে গরম হয়ে গেছি কিনা!

ঢেকটিউনস: আপনি সবসময় ওডেস্ককে ত্তডেস্ক লিখেন। এটা কি কাকতালীয়?
সোর্ডফিশ: আসলে আমি নিজস্ব বানান রীতির বিশ্বাসী। যেহেতু আমি ঢাকা ইউনিভার্সিটি থেকে বাংলায় অনার্স করেছি সেহেতু আমি নিজের মত লিখতেই পারি তাই নয় কি? আর বড় কথা হল আমার কিবোর্ডে ‘ও’ বর্ণটি নেই। আমি আবার বিজয় ৫২ ছাড়া লিখতে পারিনা।

ঢেকটিউনস: অনলাইন স্কুল নিয়ে কিছু বলুন।
সোর্ডফিশ: আসলে আমি চাই দেশ থেকে বেকারত্ব দূর হোক। আর এখন তো স্কাইল্যাঞ্চার, দুলাঞ্চারের মাতামাতি। তাই ভাবলাম ওদের মত একেবারে ৭০০০ টাকা না নিয়ে মাত্র ৩০০০ টাকা নিয়ে মলম বিজনেস শুরু করি। সবাইকে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটলেশন, ডাটা এন্ট্রি, ক্যাপচা পূরণ ইত্যাদি কাজ শেখানো হবে। চাইলে আপনিও যোগ দিতে পারেন। আমার অনলাইন ইশ্কুলের লিংক:

ঢেকটিউনস: দুঃসহ কোন স্মৃতি মনে পড়ে?
সোর্ডফিশ: ছোট বেলায় খাৎনা করতে গিয়ে কবিরাজ আমার একটি অন্ডকোষ কেটে ফেলে। কদিন আগেই জাফলং গিয়েছিলাম যদি রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে কিছু পাই। নাহ! হলনা। সেই দুঃসহ স্মৃতি আজো আমাকে তাড়া করে।

ঢেকটিউনস: শুনেছি আপনি দূর্দান্ত ফটোগ্রাফার। সেটা নিয়ে শুনবো।
সোর্ডফিশ: বললাম যে আমার কয়েকটা গার্লফ্রেন্ড আছে। কাজেই ফটো তোলার অভ্যাস সেই পিচকা কাল থেকেই। এখন কিনেছি নাইকন D1500, সাথে 28mm লেন্স। পহেলা বৈশাখ, ঈদে ললনাদের ছবি তুলতে এর জুড়ি নেই। তবে আমি শিল্পমনষ্ক তো! পশুপাখির সাথে নিজের মিল পাই, এই দেখুন আমার তোলা একটি ফটোগ্রাফ। ভাল করে খেয়াল করুন ছবির নিচে সোর্ডফিশ লেখা। ছবিটায় আমি নিজেকে খুজে পাই।

ঢেকটিউনস: মলম বিজনেস কেমন চলছে?
সোর্ডফিশ: আর বলবেন না। প্রথমে শুরু করেছিলাম ঢেকচিনি। ওদের আবার নানা শর্ত থাকে। একদিন ফোন করে বললো যে বুড়িগঙ্গায় ট্রিপ আছে। স্যুট টাই পরে চলে আসুন। আমি গেলাম। মাঝ নদীতে গিয়ে আমাকে ন্যাংটা করে সব কেড়ে নিল। সেদিন বাসায় আসতে সেকী লজ্জা!

ঢেকটিউনস: অনলাইনে প্রতিযোগী কেও আছে?
সোর্ডফিশ: হুম! আর্নট্রিক্সের সুমন ভাইয়ের কথা তো শুনেছেন? আমি বুঝিনা, উনিও কম্পুটার শেখান, আমিও শেখাই। তবুও আমার নাম প্রথম আলুতে আসেনা, উনারটা আসে। প্রতিযোগী না বলে শত্রু বলাই ভাল।

ঢেকটিউনস: পুরনো দিনের কথা মনে পড়ে?
সোর্ডফিশ: হাহা, নস্টালজিক করে দিলেন। ভার্সিটিতে থাকতে কি করিনাই! মেয়েদের ওড়না ধরে টান দেওয়া, নকল করা, গাঞ্জা টানা সবই করেছি। মজা পেতাম ক্লাসে ঘুমিয়ে। পেছনের বেঞ্চে বসে ঘুমাতাম। মাঝে মাঝে স্বপ্নদোষ হত। আহ! সেই দিনগুলা মনে পড়লো আজো আবেগে হারিয়ে যাই।

ঢেকটিউনস: ঢেকটিউনসের পক্ষ থেকে কেমন সাপোর্ট পান?
সোর্ডফিশ: সাপোর্ট আর কি? মডারেটর হওয়ার চামে নিজের ইশ্কুলের বিজ্ঞাপন দেই। ছাইয়া নিক খুজে ফ্রেন্ডশিপ করি। ঢেকটিউনসের নামে চাদা তুলি। তবুও ভালই যাচ্ছে বলতে হবে।

ঢেকটিউনস: ঈদ করবেন কোথায়?
সোর্ডফিশ: অবশ্যই মানিকগঞ্জে, আমার লুতুপুতু জানুটা অপেক্ষা করে আছে। আর না গেলে বাবা মাও রাগ করবে। ঈদের জন্য অনলাইন ইশ্কুল থেকে মারা টাকা দিয়ে শপিং করেছি, গিয়ার এন্ড স্পার্কস থেকে চার হাজার টাকায় কিনেছি একটা ক্যাজুয়াল শার্ট। দেখুন তো কেমন মানায়?

ঢেকটিউনস: নিজেকে আর কোথায় দেখতে চান?
সোর্ডফিশ: আপাতত যেমন আছি বেশ আছি। তবে মলম বিজনেসটা আরেকটু উচুতে নিয়ে যেতে চাই। সরকারীভাবে লাইসেন্স পেলে আমরা ডেকচিনিকেও ছাড়িয়ে যাব।

ঢেকটিউনস: ঢেকটিউনস টিউন্টারভিউকে সময় দেওয়ায় আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।
সোর্ডফিশ: আপনাকেও ধন্যবাদ। নিজের কুচেহারাটা সাইটের স্টিকি পোস্টে দেখাতে পারবো এটাই অনেক।

ঢেকটিউনস টিউন্টারভিউ হয়ে উঠেছে অসম্ভব জনপ্রিয়

টেকটিউনসের প্রথম টিউন্টারভিউ প্রকাশের সাথে সাথে তা পুরো দেশ জুরে সারা পড়েছে। কর্পোরেট, মিডিয়া ও নেটিজেন থেকে শুরু করে টিউজিটর সবার কাছে টিউন্টারভিউ অসম্ভম রকম প্রশংশিত ও সমাদিত হয়েছে। টিউন্টাভিউকে আরও শৃঙ্খল, সজ্জিত ও পরিকল্পিত করার জন্য অনেকেই বিভিন্ন পরামর্শ ও অভিমত দিয়েছেন। তাদের সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ। টেকটিউনসের এ ধরনের সৃজনশীল আয়োজনের আরও বেশ কিছু পরিকল্পনা রয়েছে এবং তা বাস্তবায়ন হবে ইনশাল্লাহ।

আসছে আরও নতুন টিউন্টারভিউ হোস্ট, নতুন আরও প্রণোদিত টিউন্টারভিউ গেস্টদের নিয়ে

ইতোমধ্যেই ঢেকটিউনস টিউন্টারভিউ হোস্ট হতে আবেদন করেছেন অনেকে। ঢেকটিউনস টিউন্টারভিউ প্যানেল আগামী কিছুদিনের মধ্যই নতুন হোস্ট হতে ইচ্ছুকদের সাথে কথা বলবে এবং তাদের প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দিবে। তাই আগামী দিনগুলোতে আপনারা খুঁজে পাবেন নতুন, উদ্যমী  ও মেধাবী টিউন্টারভিউ হোস্ট যারা দেশের উজ্জ্বল আর প্রতিভাবান টিউন্টারভিউ গেস্টদের আপনাদের সামনে তুলে ধরবেন।

ঢেকটিউনসের সোসিয়াল অলিগলিতে যুক্ত হোন। সাপোর্ট করুন আর প্রমোট করুন ঢেকটিউনসকে

ঢেকটিউনসের সাথে আরও নিবিড় ভাবে যুক্ত হতে এবং রিয়েলটাইম আপডেট পেতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ঢেকটিউনসের সোসিয়াল অলিগলিতে যুক্ত হোন এখনই।

শুধু নিজে নয় আপনার বন্ধু-বান্ধব, পরিজন আর সবাইকে নিয়ে আসুন এই ফ্রযুক্তির বলয়ে।

Advertisements

50 thoughts on “ঢিউন্টারভিউ: মাহবুব আলম, মডারেটর, ঢেকটিউনস

  1. কষ্ট করে এই টিউনটি করার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আপনাদের ঢিউন্টারভিউ আমার নিত্যদিনের প্রেরণা।

  2. এইসব আজাইরা অ্যাডমিনের ইন্টারভিউ নেওয়া বাদ দেন, আমিই আসল অ্যাডমিন। আমার ইন্টারভিউ নেন। আমি ফ্রবাস থেকে টাকা পাঠিয়ে সাইট চালাই, আর দেশে বসে বসে ভগিচগি অ্যাডমিন ইন্টারভিউ দেয়! জত্তসব!

    • @মঘাচীপুদ্দৌলা , ক্যান? ঢেকটিউনস ডেস্কের ঠিকানা দিয়া কি করবেন? দরকার হইলে আমি ফ্রবাস থেইকা টাকা পাঠাই, আপনে নিজের জন্য একখান ডেস্ক কিনে নেন।

      • আপনার মহানুভবতার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ ফ্রবাসী ভাই!!! তবে আমি অল্প টাকায় সন্তুষ্ট থাকতে পছন্দ করি!!! ধন্যবাদ!!!

    • আপনি আমার সাথে যুগাযুগ করপেন। কিছু মালপানি আর বখশিশ দিলেই ঢিউন্টারভিউ পাছায়া ছাপায়া দেব।

      • মালপানি আর বখশিশ আপনারা ফ্রবাসী ভাইর থেকে পাবেন, আমি উনাকে বলে দিচ্চি!!! আপনার ফোন নাম্বারটা দিবেন প্লিজ!!! ঢেকটিউনসের মত সাইটে আমার ঢিউনটারভিউ নেওয়া হবে এই ভেবেত আমার রাতে ঘুম আসপে না 😦 !!!

        ধন্যবাদ!!!

    • এতই যখন টাকা তাহলে পাইরেসি করেন কেন??? সফটওয়্যার কিনে শেয়ার করলেই তো পারতেন!!! ধন্যবাদ!!!

      • আপনি ফ্রবাসী ভাইকে এভাবে বলতে পারেন না। আপনি জানেন যে উনি ইঠালি থেকে কত হাজার হাজার টাকার সপটওয়্যার পাঠান যা দিয়ে দেশের সপটওয়্যারের চাহিদা মিটে। আপনাকে ত্তয়ার্নিং দেত্তয়া গল, এরপরে আপনার নিক সোর্ডফিশরে দিয়া ব্যান করানো হপে।

    • ফ্রবাসী ভাই, আপনি বিদেশ থেকে ঢেকটিউনসের জন্য যে ভালোবাসা দেখিয়েছেন তা আমরা কখনোই ভুলপোনা। দেশের সপটওয়্যার চাহিদা পূরণে আপনার যে কৃতিত্ব তা ঢেকটিউনসের পাতায় ডায়মন্ডাক্ষরে লেখা থাকপে।

      • ঢেকটিউনে আপনারা এত স্বৈরাচারী ভাব দেখাচ্ছেন কেন??? এটা যেমন আপনাদের সাইট তেমনি আমারও প্রিয় সাইট!!! আর ফ্রবাসী ভাই আমার প্রিয় ঢিউনার!!! উনাকে একটা কথা জিজ্ঞাসা করলাম আর আপনি আমাকে ত্তয়ার্নিং দিচ্ছেন??? তাও আমার প্রিয় মডারেটর সোর্সফিশ দিয়ে!!!

      • মঘাচীপ, আপ্নারে সতর্ক করা হল। পুনরায় এমন মন্তব্য করলে আপনকে ব্যান তো করা হপেই, সাথে বাসায় যেয়েও মারা দেওয়া হতে পারে। সাবধান!

  3. মাহবুব সাহেবকে নিয়ে আমার অনেক উচ্চাকাঙ্কা, উনি নিজে একটা মলম সাইট চালিয়ে দিনে ৩৬ ঘন্টা ঢেকটিউনের খেয়াল রাকে। স্প্যাম কমেন্ট মোছে, স্প্যাম ঢিউন মোছে, ঢিউন পেন্ডিং করে।
    আমার বাসার কাজের বুয়াটা আমার জন্য(!) অসুস্থ হয়া পড়েছে। উনি এত মুছামুছি পারেন সেহেতু আমার বাসায় এসে কাজের বুয়ার কাজগুলু করে দিলে উপকৃত হইতাম। উনি অনলাইন ইশ্কুল খুলে ৩০০০ টাকা করে নিয়ে মানুষের এত উবগার করচেন, আমার জন্য এটুকু করবেন না?
    শুবকামনা তাকল মাহবুব সাহেব। এইরকম মারতে থাকুন। ভবিস্যতের সোনালী সিড়ি গড়ে তুলুন।

    • আপনি পাশে থাকলে তেলের জন্য আমেরিকাকে ইরাক, লিবিয়া হানা দিতে হপেনা। আপনার শুভ কামনায় কামুক

      — মডারেটর সোর্ডফিশ

  4. অসাধারণ ঢিউন্টারভিউ হয়েছে। নতুন অনেক কিছু জানলাম।
    এমন ঢিউন্টারভিউ ১০০ টা পড়লেও মন ভরবে না।
    অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। 😀 😀

  5. মাহবুব ভাই, যারা খারাপ কমেন্ট করতেছে তাদের সাথে ঢেকটিউনসের কোন সম্পর্ক নাই। আপনি আপনার বিশ্বাসে অটুট থাকুন। আমরা আপনার পাশে আছি। মনোবল হারাবেন না। ধন্যবাদ।

  6. মাহবুব ভাই আমার অত্যন্ত প্রিয় ব্যক্তি ও বড় ভাই সম। তাকে নিয়ে যারা এভাবে কুৎসিত লেখা লিখেছে তাদের প্রতি তীব্র নিন্দা জানাই কেননা জিনিসটাকে আরো কুৎসিত করা যেত যেটা ঢেকটিউনাররা করেনাই। 🙄

  7. মাহবুফ বাইয়ের অনলাইং ইস্কুলে বর্তি কেমনে হমু? এইখানে কি কি ধরনের লাইন মারা শিখানু অয়? আমি তো আপনার ইস্পেসাল গেস্ট ফ্রম ঢেকটিউনস। আমর জইন্ন কি একটু কমায় রাখা যায়? চাউলে ববিসসতে আমার অইটারে আপনার কাসে পার্ট টাইম দিমু 😉

    • ছিছি, টাকার কথা বলছেন কেন? বুব ভাই আপনাকে ফ্রি ভর্তি করাবে, উনাকে আমিই ফরজাপ্ত টাকা ফ্রবাস থেকে সাপ্লাই দিয়ে থাকি।

  8. ভাই আমি আমার আইডি দিয়া পুস্ট দিতে পারতিসি না। কয় SSL connection error. ত্রকটু বুব ভাইরে দেখতে বুলেন।
    আর আমার প্রশ্ন, বুব ভাইয়ের সাথে কেমতে জুগাজুখ করমু? লিঙ্ক করায় দেন

একটা কমেন্ট করে যান

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s